সংবাদ

বিদ্যুৎহীন ভবন, জনবল সংকটে মাদারীপুর ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজি

২০২২ সালে মাদারীপুর ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজিতে তিনটি বিভাগে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী বেশি ভর্তি হয়েছেন। তবে দক্ষ জনবল সংকটে ভর্তির ৬ মাসেও সরকারি এ প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম চালুর কোনো পদক্ষেপ নেই। যার ফলে হতাশায় ভুগছেন ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, মাদারীপুর পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সৈয়দারবালী মৌজায় আটতলা বিশিষ্ট ভবনটি ৩২ কোটি ৮২ লাখ টাকা ব্যয়ে নিমার্ণ করেন স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর। এরপরে ২০২০ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেনকোলোজির এই ভবনটি উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তবে উদ্বোধনের আড়াই বছর পার হলেও এখনোও শুরু হয়নি এর কার্যক্রম।

ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজির দামি দামি আসবাবপত্র ও মূল্যবান যন্ত্রপাতি অযত্ন আর অবহেলার কারণে দিন দিন নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। অফিসের কার্যক্রম তেমন না থাকার কারণে ভবনেও কেউ থাকেন না। এছাড়া ৯ লাখ টাকা বিদ্যুৎবিল বকেয়ার কারণে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে।

এ প্রতিষ্ঠানটি পুরোপুরিভাবে চালু হলে চার বছর মেয়াদি কোর্সে প্যাথলজিস্ট, মেডিক্যাল ল্যাব টেকনিশিয়ান, ডেন্টাল, ফিজিওথেরাপি, স্বাস্থ্য পরিদর্শকসহ বিভিন্ন শাখায় প্রতিবছর সাড়ে তিনশ শিক্ষার্থী ভর্তি হতে পারবেন। একই সাথে কর্মসংস্থান বাড়বে।

আগামী জানুয়ারিতে ক্লাস চালুর লক্ষ্যে একজন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষসহ তিনজনকে অস্থায়ীভাবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তবে তারা কেহ এখন অফিস করেন না।

২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে মাদারীপুর আইএইচটিতে গত ১৬ জুন ভর্তি শুরু হয়। ফার্মাসি, রেডিও থেরাপি ও ল্যাবরেটরি বিভাগে মোট ৯০ জন শিক্ষার্থী। অন্যান্য আইএইচটিতে গত সেপ্টেম্বরে ক্লাস শুরু হয়ে গেলেও এখানে ক্লাস থেকে শুরু হবে এ নিয়ে রয়েছে অনিশ্চয়তা।

DIPLOMA NEWS এর Campus Ambassador হতে ক্লিক করুন

সম্প্রতি, এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মূল ভবনের বেশ কয়েকটি গ্লাস ভেঙে গেছে। ভবনের কয়েকটি অংশের রং উঠে গেছে। এছাড়াও ভবনের মধ্যে থাকা দামী যন্ত্রপাতি, চেয়ার-টেবিলগুলোতে ধুলোবালি জমে স্তুপে পরিণত হয়েছে। ভবনের সিড়ির গোড়ায় পড়ে থাকতে দেখা গেছে অসংখ্য সিগারেটের টুকরো।

ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা জানান, দ্রুত তাদের ক্লাস শুরু না করা হলে তারা পড়াশোনায় পিছিয়ে পড়বে। কর্তৃপক্ষের কাছে দ্রুত ক্লাস শুরু করার জোর দাবী।

ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেনকোলোজি (আইএইচটি) মাদারীপুরের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. হাবিবুর রহমান বলেন, ওইখানে বিদ্যুৎ সংযোগ নেই। আগামী জানুয়ারিতে ক্লাস শুরু হবে, এ জন্য সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে বিভিন্ন শাখায় শিক্ষার্থীদের ভর্তিও করানো হয়েছে। কিন্তু এখানে একাডেমিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য পর্যাপ্ত লোকবল নেই। ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু করতে হলে অতি দ্রুতই লোকবল দিতে হবে। আমাদের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে মন্ত্রণালয়ে লোকবলের চাহিদাপত্র পাঠানো হয়েছে। সূত্র: ঢাকাপোস্ট

আপনাদের ক্যাম্পাসের তথ্য ও খবর প্রকাশ করতে এই ঠিকনায় মেইল করুন-newsdiploma@gmail.com

Diploma News

কারিগরি ও ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের সেরা পোর্টাল DIPLOMA NEWS

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button