নোটিশ

২০২৩ সালের ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং এর ভর্তির খুঁটিনাটি

২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষের ৪ বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিপ্লোমা ইন মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিপ্লোমা ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিপ্লোমা ইন এগ্রিকালচার, ডিপ্লোমা ইন ফিসারিজ, ডিপ্লোমা ইন ফরেস্ট্রি ও ডিপ্লোমা ইন লাইভস্টক শিক্ষাক্রমের ১ম পর্বের ভর্তির অনলাইনে আবেদন সরকারি ও বেসরকারি শুরু হয়েছে।

১. ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতা-

সরকারি প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে-

ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাক্রম: সকল শিক্ষা বোর্ড অথবা বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত এস.এস.সি/ দাখিল / এস.এস.সি(ভোকেশনাল) / দাখিল (ভোকেশনাল) / সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং ছাত্রদের ভর্তির ক্ষেত্রে সাধারণ গণিত বা উচ্চতর গণিতে জিপি ৩.০০ সহ কমপক্ষে জিপিএ ৩.৫ এবং ছাত্রীদের ভর্তির ক্ষেত্রে সাধারণ গণিত বা উচ্চতর গণিতে জিপি ২.০ সহ কমপক্ষে জিপিএ ২.৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা অথবা ‘ও’ লেভেলে যেকোন একটি বিষয়ে ‘সি’ গ্রেড এবং গণিতসহ অন্য যেকোন দুটি বিষয়ে ন্যূনতম ‘ডি’ গ্রেড পেয়ে যেকোনো সালে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। জিপিএ পদ্ধতি চালুর পূর্বে এস.এস.সি বা সমমান পরীক্ষায় ন্যূনতম ২য় বিভাগ প্রাপ্ত যেকোনো সালে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে।

ডিপ্লোমা ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাক্রম :সকল শিক্ষা বোর্ড অথবা বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত এস.এস.সি/ দাখিল / এস.এস.সি(ভোকেশনাল) / দাখিল (ভোকেশনাল) / সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং ছাত্রদের ভর্তির ক্ষেত্রে সাধারণ গণিত বা উচ্চতর গণিতে জিপি ৩.০০ সহ কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ এবং ছাত্রীদের ভর্তির ক্ষেত্রে সাধারণ গণিত বা উচ্চতর গণিতে জিপি ২.০ সহ কমপক্ষে জিপিএ ২.৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা অথবা ‘ও’ লেভেলে যেকোন একটি বিষয়ে ‘সি’ গ্রেড এবং গণিতসহ অন্য যেকোন দুটি বিষয়ে ন্যূনতম ‘ডি’ গ্রেড পেয়ে যে কোন সালে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। জিপিএ পদ্ধতি চালুর পূর্বে এস.এস.সি বা সমমান পরীক্ষায় ন্যূনতম ২য় বিভাগ প্রাপ্ত যেকোনো সালে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে।

ডিপ্লোমা-ইন-মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাক্রম : (ক) সকল শিক্ষা বোর্ড/বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত এস.এস.সি/ দাখিল পরীক্ষায় শুধুমাত্র বিজ্ঞান বিভাগ থেকে অথবা এস.এস.সি(ভোকেশনাল)/দাখিল (ভোকেশনাল) পরীক্ষায় (গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়ন বিজ্ঞানসহ) কমপক্ষে জিপিএ ৩.৫০ নিয়ে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। ইংলিশ মিডিয়াম পাঠ্যক্রমের আওতায় পদার্থ বিজ্ঞান, গণিত, ইংরেজিসহ ন্যূনতম ৫ টি বিষয় নিয়ে C-গ্রেডে O- Level সনদপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীগণও আবেদন করতে পারবে।

(খ) বয়সঃ আবেদনের তারিখে সর্বোচ্চ ১৮ বছর। (গ) শারীরিক যোগ্যতা. উচ্চতা, পুরুষ প্রার্থীদের জন্য কমপক্ষে ৫ ফিট ৪ ইঞ্চি এবং মহিলা প্রার্থীদের জন্য কমপক্ষে ৫ ফিট ২ ইঞ্চি হতে হবে। দৃষ্টিশক্তি ন্যূনতম ৬/১২ (চশমা সহ ৬/৬) হতে হবে। ওজনঃ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার BMI (Body Mass Index) চার্ট মোতাবেক হতে হবে। BMI সর্বনিম্ন ১৭ এবং সর্বোচ্চ ২৫ হতে হবে, যেমন উচ্চতা ৫’২” এর জন্য ওজন ৪৩-৫৭ কেজি; ৫’ ৪” এর জন্য ৪৫-৬৬ কেজি; ৫’৬” এর জন্য ৪৮-৭১ কেজি; ৫’৮” এর জন্য ৫০-৭৫ কেজি; ৫’ ১০” এর জন্য ৫৪-৮০ কেজি; ৬” এর জন্য ৫৬-৮৪ কেজি হতে হবে। স্বীকৃত চিকিৎসক হতে মেডিকেল ফিটনেস সনদ, চক্ষু ও কালার ভিশন ফিটনেস সনদ ও হিয়ারিং ফিটনেস সনদপ্রাপ্ত হতে হবে। উল্লেখ্য, মেরিন ও শিপ বিল্ডিং টেকনোলজিতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের CDC ( Continuous Discharge Certificate) পাওয়ার ন্যূনতম যোগ্যতাকে ভর্তির যোগ্যতা হিসেবে বিবেচনায় নেয়া হয়েছে।

ডিপ্লোমা-ইন-এগ্রিকালচার, ডিপ্লোমা-ইন-ফরেস্ট্রি, ডিপ্লোমা-ইন-লাইভস্টক ও ডিপ্লোমা-ইন-ফিসারিজ শিক্ষাক্রম : সকল শিক্ষা বোর্ড অথবা বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত এস.এস.সি/ দাখিল / এস. এস. সি (ভোকেশনাল) / দাখিল (ভোকেশনাল) / সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কমপক্ষে জিপিএ ২.৫০ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা অথবা ‘ও’ লেভেলে যে কোন একটি বিষয়ে ‘সি’ গ্রেড ও অন্য যেকোন দুটি বিষয়ে ন্যূনতম ‘ডি’ গ্রেড পেয়ে উত্তীর্ণ যে কোন বয়সের শিক্ষার্থীরা ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। জিপিএ পদ্ধতি চালুর আগে এস.এস.সি বা সমমান পরীক্ষায় ন্যূনতম ২য় বিভাগ উত্তীর্ণ যেকোন বয়সের শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে। তবে ডিপ্লোমা-ইন-ফিসারিজ শিক্ষাক্রম এর ক্ষেত্রে ‘জীববিজ্ঞান’ বিষয়ে জিপি ৩.০০ সহ বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ ৩.০০ প্রাপ্তদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে:

ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিপ্লোমা ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিপ্লোমা-ইন-এগ্রিকালচার ও ডিপ্লোমা-ইন-ফিসারিজ শিক্ষাক্রমের ক্ষেত্রে: সকল শিক্ষা বোর্ড অথবা বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত এস. এস. সি/ দাখিল / এস.এস.সি (ভোকেশনাল)/ দাখিল (ভোকেশনাল) / সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা কমপক্ষে জিপিএ ২.০০ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা অথবা ‘ও’ লেভেল উত্তীর্ণ যে কোন বয়সের শিক্ষার্থীরা ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। জিপিএ পদ্ধতি চালুর পূর্বে এস.এস.সি বা সমমান পরীক্ষায় যে কোন সালে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী আবেদন করতে পারবে।

ডাটাবেসে তথ্য নেই, এমন শিক্ষার্থীর আবেদনের ক্ষেত্রে:

২০১৫ সালের পূর্বের এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় পাশকৃত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী অথবা কোন কোন ক্ষেত্রে তার পরের পাশকৃত শিক্ষার্থী/বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি. উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী যাদের তথ্য ডাটাবেসে নেই তাদের আবেদন ফি প্রদানে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বনের অনুরোধ জানানো যাচ্ছে। আবেদন ফি প্রদানের পর উক্ত শিক্ষার্থীরা আবেদন ফর্ম পূরণের পূর্বে নির্ধারিত বিশেষ ফর্মে এসএসসি/সমমান পরীক্ষার ফলাফল এবং ব্যক্তিগত প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করতে হবে। এক্ষেত্রে ভুল তথ্য প্রদানকারী শিক্ষার্থীর আবেদন বাতিল হয়ে যেতে পারে।

এ সকল শিক্ষার্থীর সরকারি প্রতিষ্ঠানে ভর্তির ক্ষেত্রে, ২০১৫ সালের পূর্বে এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় পাশকৃত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী অথবা কোন কোন ক্ষেত্রে তার পরের পাশকৃত শিক্ষার্থী/বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এসএসসি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী যাদের তথ্য ডাটাবেসে নেই তাদের নম্বরপত্রের মূলকপি প্রদর্শনপূর্বক নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি ও পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত ২ কপি রঙ্গিন ছবি বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নতুন ভবনের ৭০৬ নং কক্ষে কৃষিবিদ মো. আব্দুল মালেক, কারিকুলাম বিশেষজ্ঞ (কৃষি) এর নিকট অনলাইনে আবেদনের সময়সীমার শেষ তারিখের মধ্যে ফটোকপি জমা দিতে হবে। অন্যথায় আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে।

উল্লেখ্য, ‘ও’ লেভেল হতে পাসকৃত শিক্ষার্থীদের নিজ উদ্যোগে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড হতে সমমান করার পর মূল কাগজপত্রসহ আবেদনের শেষ তারিখের মধ্যে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নতুন ভবনের ৭০৬ নং কক্ষে উপস্থিত হয়ে ম্যানুয়ালী আবেদন করতে হবে।

এ সকল শিক্ষার্থীর বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ভর্তির ক্ষেত্রে, ২০১৫ সালের পূর্বের এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় পাশকৃত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী অথবা কোন কোন তার পরের পাশকৃত শিক্ষার্থ/বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এসএসসি উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী যাদের তথ্য ডাটাবেসে নেই তাদের নম্বরপত্রের মূলকপি প্রদর্শনপূর্বক নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি ও পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত ২ কপি রঙ্গিন ছবি বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নতুন ভবনের ৭০১ নং কক্ষে রুপক কান্তি বিশ্বাস, কারিকুলাম বিশেষজ্ঞ (ডিপ্লোমা) এর নিকট জমা দিতে হবে। অন্যথায় আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে। উল্লেখ্য, ‘ও’ লেভেল হতে পাসকৃত শিক্ষার্থীদের নিজ উদ্যোগে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড হতে সমমান করার পর মূল কাগজপত্রসহ আবেদনের শেষ তারিখের মধ্যে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নতুন ভবনের ৭০১ নং কক্ষে উপস্থিত হয়ে রুপক কান্তি বিশ্বাস, কারিকুলাম বিশেষজ্ঞ (ডিপ্লোমা) এর নিকট জমা দিতে হবে। অন্যথায় আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে।

ভর্তি বিষয়ক সাধারণ নির্দেশনা :

ভর্তি সংক্রান্ত সকল কার্যক্রমের সময়সূচি, ভর্তি নির্দেশিকা, আবেদনের নিয়মাবলী ও ফলাফল সংক্রান্ত তথ্যাদি ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট www.btebadmission.gov.bd ও বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট www.bteb.gov.bd এবং কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর, কৃষি অধিদপ্তর, প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তর, মৎস্য অধিদপ্তর, বস্ত্র অধিদপ্তর, বন অধিদপ্তর,বিএমইটিসহ সকল সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, মনোটেকনিক ইনস্টিটিউট, মেরিন ইনস্টিটিউট, টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট,মৎস্য ইনস্টিটিউট, ফিশারিজ ইনস্টিটিউট, লাইভস্টক ইনস্টিটিউট ও বেসরকারি ইনস্টিটিউটসমূহের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

অনলাইনে শিক্ষাক্রম ভিত্তিক আবেদনকারী সরকারি প্রতিষ্ঠানে সর্বোচ্চ সরকারি ১৫ টি প্রতিষ্ঠান/টেকনোলজির পছন্দক্রম নির্বাচন করতে পারবে এবং প্রতি শিফটের জন্য (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) আবেদনের জন্য ১৬২/- (একশত বাষট্টি টাকা মাত্র) ও উভয় শিফটের (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) আবেদনের জন্য ৩২৪/- (তিনশত চব্বিশ টাকা মাত্র) মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ/নগদ/রকেট/উপায়/ ট্যাপ/ওকে ওয়ালেট এর মাধ্যমে আবেদন ফি প্রদান করতে হবে।

অনলাইনে শিক্ষাক্রম ভিত্তিক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে আবেদনকারী শুধুমাত্র ১টি প্রতিষ্ঠান ও টেকনোলজি/স্পেশালাইজেশন -এ ১৬২/- (একশত বাষট্ৰি টাকা মাত্র) মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ / নগদ/ রকেট/ উপায়/ ট্যাপ/ওকে ওয়ালেট এর মাধ্যমে আবেদন ফি প্রদান করে আবেদন করতে পারবে।

অনলাইন আবেদনে শিক্ষার্থীর কোনো তথ্য অসত্য, ভুল বা অসম্পূর্ণ বলে প্রমাণিত হলে তার আবেদন/চূড়ান্ত ভর্তি বাতিল করার অধিকার বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

এই ভর্তি নির্দেশিকার যেকোনো ধারা/নিয়মাবলীর সংশোধন, সংযোজন, পরিবর্তন বা বাতিল করার অধিকার বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

অনলাইনের মাধ্যমে ভর্তি আবেদন ও নিশ্চায়নের জন্য করণীয়:

আবেদনকারীকে অনলাইনে আবেদন শুরুর কমপক্ষে ৩০ মিনিট পূর্বে শিক্ষাক্রম ভিত্তিক পেমেন্ট কোড অনুসরণপূর্বক মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ / নগদ/রকেট/উপায়/ট্যা/ওকে ওয়ালেট-এর মাধ্যমে আবেদন ফি প্রদান করতে হবে। ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট (www.btebadmission.gov.bd) 4 শিক্ষাক্রম ভিত্তিক পেমেন্ট কোড ও মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে আবেদনের ফি প্রদান পদ্ধতি ও নিশ্চায়ন ফি প্রদান পদ্ধতি বর্ণনা করা হয়েছে। তদনুসারে শিক্ষাক্রম ও শিফটভিত্তিক (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) সরকারি/বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের জন্য আবেদন ফি প্রদান করতে হবে।

অনলাইনে আবেদন পদ্ধতি করণীয়

(ক) আবেদন ফি প্রদানকারী শিক্ষার্থী ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট www.btebadmission.gov.bd এ প্রবেশ করে পেমেন্টকৃত প্রোগ্রাম সংশ্লিষ্ট Apply Now বাটনে ক্লিক করবে। ক্লিক করার পর আবেদনকারী সংশ্লিষ্ট প্রোগ্রামের Application পেজ দেখতে পারে। Application পেজ-এর নির্ধারিত ঘরে আবেদনকারীর এস. এস. সি রোল নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, বোর্ডের নাম, পাসের সন ও নিজ মোবাইল নম্বর এন্ট্রি পূর্বক Next’ Button ক্লিক করবে। আবেদনকারীকে তার মোবাইল নম্বর সতর্কতার সহিত প্রদান করতে হবে। পরবর্তীতে সমস্ত যোগাযোগ এবং প্রয়োজনীয় তথ্যাদি প্রদত্ত মোবাইল নম্বরে প্রেরণ করা হবে।

(খ) Next Button ক্লিক করার পর আবেদনকারী তার যাবতীয় তথ্য দেখতে পাবে। (যদি আবেদনকারী ফি প্রদান না করে থাকে- সে ক্ষেত্রে আবেদনকারী আবেদন ফি প্রদান করেনি এরুপ Message প্রদর্শিত হবে।

(গ) আবেদনকারী তার স্ক্যানকৃত ছবি (ফরমেট jpg সাইজ 50 KB Ges150 px x 120 px) আপলোড করবে। আপলোড করার পর নীচের Save and Next Button ক্লিক করবে। সফলভাবে তথ্য সংরক্ষিত হলে আবেদনকারী একটি সিকিউরিটি কোড দেখতে পাবে। আবেদনকারীকে অবশ্যই সিকিউরিটি কোডটি ভবিষ্যতে ব্যবহারের জন্য সংরক্ষণ করতে হবে । এরপর Next বাটনে ক্লিক করলে Applicant’s Account পেজ প্রদর্শিত হবে। ঐ পেজে আবেদনকারী তার সংশ্লিষ্ট প্রোগ্রামের Apply Now বাটনে ক্লিক করবে। এরপর আবেদনকারী উক্ত প্রোগ্রামের অপশন ফরম দেখতে পারবে। অপশন ফরমে আবেদনকারী তার ভর্তিচ্ছু প্রোগ্রামসমূহ Drop Down মেনুতে দেখতে পাবে।

(ঘ) Selection Criteria প্রদর্শিত হলে আবেদনকারীকে পছন্দনীয় জেলা, ঐ জেলার প্রতিষ্ঠান এবং ঐ প্রতিষ্ঠানের শিফট, টেকনোলজি নির্বাচন করে “Add Selected Institute’ Button এ ক্লিক করতে হবে। এভাবে সরকারী প্রতিষ্ঠানে আবেদনকারী সর্বোচ্চ সরকারী ১৫ টি প্রতিষ্ঠান/টেকনোলজির পছন্দক্রম এবং বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে আবেদনকারী শুধুমাত্র ১ টি প্রতিষ্ঠান ও টেকনোলজি নির্বাচন করতে পারবে। পছন্দক্রম নির্বাচন করার পর Submit Button এ ক্লিক করে নির্বাচিত প্রোগ্রাম এ আবেদন সম্পন্ন করবে।

সফলভাবে আবেদন সম্পন্ন হলে আবেদনকারী বাম পার্শ্বে আবেদনকৃত প্রোগ্রামের নাম দেখতে পাবে এবং Submit কৃত আবেদনটি প্রিন্ট নিতে পারবে। উল্লেখ্য, বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে আবেদনকারীর আবেদনকৃত প্রতিষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট টেকনোলজিতে শূন্য আসন থাকলে ফলাফল প্রকাশিত হবে। ফলাফল প্রকাশ হলে নিশ্চায়ন ফি প্রদান করে ভর্তি নিশ্চায়ন সম্পূর্ন করতে হবে । শিক্ষাক্রমভিত্তিক পেমেন্ট কোড ব্যবহার করে বিকাশ/নগদ/রকেট/উপায়/ ট্যাপ/ওকে ওয়ালেট এর মাধ্যমে নিশ্চায়ন ফি প্রদান করতে হবে।

সরকারি প্রতিষ্ঠানে (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) আবেদনের জন্য আবেদনকারী কোটা Selection এর Drop Down মেনু দেখতে পাবে। প্রোগ্রামে আবেদন করার পূর্বে আবেদনকারী তার প্রযোজ্য কোটা নির্বাচন করে তার নির্দিষ্ট প্রোগ্রাম Submit করবে। একই প্রার্থীর একাধিক কোটা প্রযোজ্য হলে Drop Down মেনু থেকে একাধিক কোটা নির্বাচন করতে হবে।

আবেদনকারী তার প্রোগ্রামে Select কৃত প্রতিষ্ঠান/টেকনোলজি ও তার পছন্দক্রম দেখতে পারবে। আবেদনকারী চাইলে তার আবেদনকৃত প্রোগ্রামে প্রতিষ্ঠান/টেকনোলজির পছন্দক্রম পরিবর্তন এবং নতুন প্রতিষ্ঠান/টেকনোলজি সংযোজন ও পূর্বেও Select কৃত প্রতিষ্ঠান/টেকনোলজি বিয়োজন করতে পারবে। আবেদনকারী ভবিষ্যতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে Applicant Login অপশন থেকে SSC Roll Board, Passing Years Security Code এন্ট্রি করে Applicant’s Account পেজ এ যেতে পারবে এবং চাইলে তার আবেদনকৃত প্রোগ্রামে প্রতিষ্ঠান/টেকনোলজি’র পছন্দক্রম পরিবর্তন এবং নতুন প্রতিষ্ঠান/টেকনোলজি সংযোজন ও পূর্বেও Select কৃত প্রতিষ্ঠান / টেকনোলজি বিয়োজন করতে পারবে।

একই আবেদনকারী একাধিক প্রোগ্রামে (যেমন- ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং, এগ্রিকালচার টেকনোলজি ইত্যাদি) আবেদন করতে চাইলে- আবেদনকারীকে প্রত্যেক প্রোগ্রামের জন্য আলাদা আলাদা Payment সম্পন্ন করতে হবে। Payment সম্পন্ন করে Applicant Login অপশান থেকে SSC Roll Board, Passing Year s Security Code এন্ট্রি করে পূর্বের নিমাবলী অনুসরণ করে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।

কোটা প্ৰদান (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)

সরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহের ক্ষেত্রে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ভর্তি নীতিমালা ২০২৩ অনুযায়ী কোটা নির্বাচন করা হবে। শিক্ষার্থীরা অন-লাইনে মুক্তিযোদ্ধা ও অন্যান্য কোটার তথ্য ছকের নির্দিষ্ট স্থানে তার জন্য প্রযোজ্য কোটা Select করবে। একজন প্রার্থী একাধিক কোটার যোগ্য হলে- প্রার্থী তা অন-লাইনে দিতে পারবে। প্রথমে Drop Down List থেকে নির্বাচিত (Selected) কোটার সাথে যাবতীয় সকল Evidence Certificate PDF ফরমেটে (অনধিক 2 MB) আপলোড করতে হবে। একধিক কোটার জন্য আবেদন করলেও সকল কোটার সংশ্লিষ্ট করণীয় Evidence Certificate একসাথে একটি মাত্র PDF ফাইল (অনধিক 2 MB) হিসেবে আপলোড করতে হবে।

উল্লেখ্য, কোটায় আবেদনের ক্ষেত্রে যথাযথ কর্তৃপক্ষের ইস্যুকৃত মূল সনদপত্র থাকতে হবে এবং পরবর্তীতে সংশ্লিষ্ট কারিগরি প্রতিষ্ঠান কর্তৃক কোটা সংক্রান্ত দলিলাদি যাচাই করা হবে বিধায় কোটার অপশন (Option) দেয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। প্রযোজ্য নয় এমন কোটা নির্বাচন করা হলে অথবা পরবর্তীতে দলিলাদি দেখাতে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট কোটা বা ভর্তি বাতিল বলে গণ্য হতে পারে। উল্লেখ্য, কোটায় আবেদনকারীর Application ID সম্বলিত প্রিন্ট আউটসহ আবেদনপত্র বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নতুন ভবনের ৭০৬ নং কক্ষে কৃষিবিদ মো: আব্দুল মালেক, কারিকুলাম বিশেষজ্ঞ (কৃষি) এর নিকট অনলাইনে আবেদনের সময়সীমার শেষ তারিখের মধ্যে মূলকপি প্রদর্শনপূর্বক ফটোকপি জমা দিতে হবে।

উল্লেখ্য, সংরক্ষিত কোটার (ভোকেশনাল ও মহিলা কোটা ব্যতিত) আবেদনকারীগণ অন-লাইনে আবেদন করার পরে আবেদনের প্রিন্ট কপি ও ভর্তির নীতিমালা-২০২৩ এর অনুচ্ছেদ ৭.০ এ বর্ণিত ভর্তির ক্ষেত্রে কোটা পদ্ধতির (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) সকল কাগজপত্র আগামী অফিস চলাকালীন সময়ে (সকাল ৯ টা হতে ৪ টা পর্যন্ত) বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নতুন ভবনের ৭০৬ নং কক্ষে কৃষিবিদ মো: আব্দুল মালেক, কারিকুলাম বিশেষজ্ঞ (কৃষি) এর নিকট অনলাইনে আবেদনের সময়সীমার শেষ তারিখের মধ্যে মূলকপি প্রদর্শনপূর্বক ফটোকপি জমা দিতে হবে। এ ছাড়া সরাসরি বা খামে “ভর্তি কোটার আবেদন” লেখাসহ ডাকযোগে পাঠাতে হবে। না হলে নির্ধারিত কোটা বিবেচ্য হবে না।

আপনাদের ক্যাম্পাসের তথ্য ও খবর প্রকাশ করতে এই ঠিকনায় মেইল করুন-newsdiploma@gmail.com

Diploma News

কারিগরি ও ডিপ্লোমা শিক্ষার্থীদের সেরা পোর্টাল DIPLOMA NEWS

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button